ঢাকা ২৪ জুন, ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম
আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা ভারত বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী-বিশ্বস্ত বন্ধু সাভার-আশুলিয়া সড়কে কমেছে যানবাহনের চাপ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌কে ১৩ কি‌লো‌মিটার অংশে যানজট-ধীরগ‌তি‌ হজ ২০২৪: মিনায় ২০ লাখেরও বেশি হজযাত্রী বড় গরু নিয়ে হতাশ খামারিরা, ক্রেতা বেশি লাখ টাকার নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছে মানুষ, বাস টার্মিনালে উপচে পড়া ভিড় নেপালের বিদায়ে যেমন হলো বাংলাদেশের সুপার এইট সমীকরণ ১ রানের হারে নেপালের স্বপ্নভঙ্গ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নেই যানবাহনের চাপ

সরকার অচল করতে আমাকে সরাতে চায় রিপাবলিকানরা: বাইডেন

#

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩,  12:31 PM

news image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে অভিশংসন তদন্ত শুরু করার পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে। বিরোধী রিপাবলিকানদের অভিযোগ, বাইডেনের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার, প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি এবং দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

যদিও বাইডেন বলেছেন, সরকার অচল করতে অভিশংসনের মাধ্যমে তাকে ক্ষমতা থেকে সরাতে চায় রিপাবলিকানরা। বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সরকার অচল করতে রিপাকলিকানরা তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এর কয়েক ঘণ্টা আগে মার্কিন এই ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অভিশংসন তদন্ত শুরুর নিন্দা জানায় হোয়াইট হাউস।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জ্যঁ-পিয়েরে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের বিরুদ্ধে এই তদন্তকে একটি ‘রাজনৈতিক স্টান্ট’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেছেন, রিপাবলিকানরা হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে ব্যবসায়িক লেনদেনের তদন্ত করেছে, তারপরও তারা প্রেসিডেন্ট বাইডেনের বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ উপস্থাপন করতে পারেনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে যুক্তরাষ্ট্রে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে সাড়ে ১৩ লাখ মার্কিন ডলার আয়ের ওপর কর দেননি তিনি। এছাড়া অবৈধ অস্ত্র রাখার অভিযোগও রয়েছে হান্টারের বিরুদ্ধে।

এমনকি রিপাবলিকানরা বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেনের ব্যবসায়িক লেনদেনের বিষয়ে নজর দিয়েছেন। আর প্রেসিডেন্ট বাইডেন তার ছেলে হান্টার বাইডেনের ব্যবসায়িক লেনদেন থেকে উপকৃত হয়েছিলেন কিনা, সেটিকে ঘিরেই এই তদন্ত শুরু করেছে রিপাবলিকানরা।

বুধবার বাইডেন ভার্জিনিয়ার একটি তহবিল সংগ্রহের অনুষ্ঠানে বলেন, ‘আমি ঠিক জানি না কেন, তবে কেবল তারাই জানে কেন তারা আমাকে অভিশংসন করতে চায়। আমি সবচেয়ে ভালো যা বলতে পারি, তা হলো- তারা আমাকে অভিশংসন করতে চায় কারণ তারা সরকারকে অচল করতে চায়।’

বাইডেন বলেছেন, তিনি অভিশংসন তদন্তের বিষয়ে মনোনিবেশ করতে চান না। তার ভাষায়, ‘আমি প্রতিদিন উঠি এবং অভিশংসনের দিকে মনোনিবেশ করি না। আমার কাজ আছে, দায়িত্ব আছে।’

বাইডেন আরও বলেন, মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য মার্জোরি টেলর গ্রিন যখন প্রথমবার মার্কিন কংগ্রেসে নির্বাচিত হন, তখন তিনি বলেছিলেন- তিনি প্রথমে যা করতে চান তা হলো- তাকে (বাইডেনকে) অভিশংসন করা।

মার্জোরি টেলর গ্রিন মূলত অতি-কট্টর-ডানপন্থি রিপাবলিকান আইনপ্রণেতা এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কট্টর মিত্র হিসেবে পরিচিত।

অন্যদিকে ওয়াশিংটনের শীর্ষ রিপাবলিকান প্রতিনিধি এবং হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার কেভিন ম্যাকার্থিকে অভিশংসন তদন্তের আদেশ দিতে চাপ দেওয়ার জন্য টেলর গ্রিনকে দায়ী করেছে হোয়াইট হাউস।

এছাড়া হোয়াইট হাউস হান্টারের বিরুদ্ধে মামলায় কোনও ধরনের হস্তক্ষেপের কথা অস্বীকার করেছে। এমনকি হান্টারের ব্যবসায়িক কার্যক্রমের সঙ্গে বাইডেনের কোনও ধরনের যোগসূত্র নেই বলেও উল্লেখ করেছে হোয়াইট হাউস।

logo
সম্পাদক ও প্রকাশক মো: মনিরুজ্জামান মনির