ঢাকা ০২ অক্টোবর, ২০২২
সংবাদ শিরোনাম
থাইল্যান্ডকে ৮২ রানে অলআউট করল বাংলাদেশ ষষ্ঠী পূজা দিয়ে শুরু হচ্ছে দুর্গোৎসব আফগানিস্তানে আত্মঘাতি বোমা হামলায় ‍মৃত্যু বেড়ে ৩০ দুর্গাপূজা এখন সার্বজনীন উৎসব : প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে পাগলা মসজিদের দানবাক্সে মিলল ১৫ বস্তা টাকা, চলছে গণনা রেলওয়ে বুকিং সহকারী রনিকে লাঞ্ছিত করার তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ ও বিচার দাবি- বুকিং সহকারী এসোসিয়েশনের কোটার শ্রেণি বিন্যাস না করে ফলাফল ঘোষণা দূর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার বহিঃপ্রকাশ - মনিরুজ্জামান মনির ফ্লোরিডায় হারিকেন ইয়ানের তাণ্ডবে অন্তত ১৭ জনের মৃত্যু রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৫৯

রেলওয়ের ৭ হাজার টিএলআর শ্রমিকের ভবিষ্যত নিয়ে ছিনিমিনি খেলা বন্ধ করুন : মনিরুজ্জামান মনির

#

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২,  2:11 PM

news image

আউটসোর্সিং এর নামে পকেটসোর্সিং ব্যবসা বন্ধ করে টিএলআর শ্রমিকদের বকেয়া বেতন অবিলম্বে পরিশোধ ও ৭ হাজার টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিকের ভবিষ্যত নিয়ে ছিনিমিনি খেলা বন্ধের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ মনিরুজ্জামান মনির।

আজ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ বুধবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এ দাবি জানান। বিজ্ঞপ্তিতে মনিরুজ্জামান মনির বলেন, রেলওয়েতে টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিক হিসেবে ৩ বছর চাকরি সম্পন্ন করেছেন ঐ সকল শ্রমিকদের রেলওয়ে আইন অনুযায়ী চাকরি স্থায়ীকরণের নিয়ম থাকলেও কতৃর্পক্ষ আউটসোর্সিং এর নামে দাসত্ব প্রথা নিয়োগ বিধিমালা ২০২০ এর মাধ্যমে চালু করার পায়তারা করছে। বাংলাদেশ রেলওয়েতে টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিক হিসেবে জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া চলমান। রেলওয়ের জন্মলগ্ন থেকে জরুরী প্রয়োজনে রেলপথ সচল রাখতে জনবল সংকট সমাধানে টিএলআর পদে চাহিদা অনুযায়ী বিভাগীয় প্রধান জনবল নিয়োগ করে থাকেন। নিয়োগপ্রাপ্তদের অধিকাংশই রেলওয়ের অবসরপ্রাপ্ত ও কর্মরত অসহায় দরিদ্র কর্মচারীদের সন্তান। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক একটি দুর্নীতিবাজ চক্র নিয়োগ বিধিমালা ২০২০ এ টিএলআর পদে নিয়োগপ্রাপ্ত পদগুলোকে আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় জনবল নিয়োগের বিষয়টি অন্তভুর্ক্ত করেন। আউটসোর্সিং একটি দাসত্ব প্রথা। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে টেন্ডারের মাধ্যমে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চাহিদা অনুযায়ী একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক জনবল দিয়ে নির্দিষ্ট কাজ করবেন। নিয়োগপ্রাপ্ত জনবলের শ্রমিকদের যখন খুশি নিয়োগ ও ছাঁটাই করতে পারবেন। এ যেন এক অভিশপ্ত জীবন। এককথায় বলতে গেলে আউটসোর্সিং এর নামে পকেটসোর্সিং বাণিজ্য করতে দুর্নীতিবাজ চক্র কাজ করে চলছে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়েতে প্রায় ৬৮২৯ জন টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিক কর্মরত রয়েছেন। নিয়োগ বিধিমালা ২০২০ এর মাধ্যমে দক্ষ শ্রমিকদের চাকরি থেকে বাদ দিয়ে আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে জনবল নিয়োগে উঠেপড়ে লেগেছে একটি চক্র। বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি বিশেষায়িত কারিগরি প্রতিষ্ঠান। রেলওয়ের টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিক হিসেবে কর্মরত শ্রমিকদের বাদ দিয়ে আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে জনবল নিয়োগ করা হলে রেলওয়ের সুষ্ঠু পরিচালনা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠবে। আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে জনবল নিয়োগে সরকারের কোটি কোটি টাকা অপচয় হবে। তারপরেও সরকারের অর্থবিভাগ, রেলপথ মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ রেলওয়ের কিছু দুর্নীতিবাজ চক্র অসৎ লাভের আশায় টিএলআরদের বাদ দিয়ে আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে জনবল নিয়োগের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।

রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির সভাপতি বলেন,  টিএলআর শ্রমিকদের গত ৩ মাস যাবত বেতন—ভাতা প্রদান করা হচ্ছে না। বেতন না পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে তারা মানবেতর জীবনযাপন করছে। সুষ্ঠু ও নিরাপদ রেলপথ পরিচালনায় দীর্ঘদিন থেকে রেলওয়েতে কর্মরত টিএলআরদের পরিবর্তে আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে সেবা গ্রহণে সরকারি স্বার্থ বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটি আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে জনবল নিয়োগের প্রচেষ্টা বন্ধ করে ৭ হাজার টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিকের গত ৩ মাসের বেতন ভাতা অবিলম্বে প্রদান এবং চাকরি স্থায়ীকরণের দাবি জানাচ্ছে। অন্যথায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে এর দায় রেলপথ মন্ত্রণালয়কে নিতে হবে।

logo
সম্পাদক ও প্রকাশক মো: মনিরুজ্জামান মনির