ঢাকা ২৪ জুন, ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম
৮ জুলাই চীন সফরে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী ছাগলকাণ্ডের সেই মতিউরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা মেজর জিয়াসহ ৪ আসামির বিচার শুরু, ৫ জনকে অব্যাহতি ‘প্রযুক্তিজ্ঞান ছাড়া দেশ বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে না’ অ্যান্টিগায় নীরবতা নামিয়ে সেমিফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা দুর্নীতিতে অভিযুক্তের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার নির্দেশ পেলে ব্যবস্থা ‘সম্পদের পাহাড়’ ছেড়ে আত্মগোপনে ছাগলকাণ্ডের মতিউরের স্ত্রী রাশিয়ার দাগেস্তানে ভয়াবহ হামলা, নিহত অন্তত ১৫ পুলিশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা ভারত বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী-বিশ্বস্ত বন্ধু

রেলওয়ে রানিং স্টাফদের মধ্যরাত থেকে ধর্মঘটের ঘোষণা

#

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৭ আগস্ট, ২০২৩,  4:42 PM

news image

দীর্ঘ ১৬২ বছর থেকে পেয়ে আসা  পেনশন-সুবিধা পুনর্বহালের দাবিতে আজ রাত থেকে ধর্মঘটে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন  রেলওয়ে রানিং স্টাফ ও শ্রমিক-কর্মচারীরা।  সমিতির সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান আজ রবিবার ধর্মঘটের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 

রেলওয়ের রানিং স্টাফরা দৈনিক শ্রমঘণ্টার বাইরে প্রতিদিন অতিরিক্ত যে কাজ করেন, সেটা পেনশন-আনুতোষিক (পার্ট অব পে) প্রদানের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার বিধান ছিল। রেলওয়ে বিধিবিধান অনুযায়ী পার্ট অব পের ফলে মূল পেনশনের সঙ্গে অতিরিক্ত ৭৫% সুবিধা পেয়ে আসছিল। দেশে রেল চালু হওয়ার শুরু থেকে ১৬২ বছর ধরে চলে আসছে। 

কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে এই সুবিধা প্রত্যাহারের নির্দেশনা দেওয়ায় এবং অবসরে যাওয়া শ্রমিকদের পেনশনের ফাইল আটকে যাওয়ায় ২০২০ সালের ২৬ আগস্ট থেকে আন্দোলন করে আসছেন রানিং স্টাফরা। 

তার পূর্বে গত ২০ আগস্ট রেলমন্ত্রী, সচিব ও রেলওয়ে মহাপরিচালক রানিং স্টাফদের নেতৃবৃন্দকে ডেকেছিলেন। 

২০ আগস্টের ঘটনা নিয়ে রানিং স্টাফদের  একজন নেতা অভিযোগ করে বলেন, রেলমন্ত্রী সেদিন আমাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেননি। তিনি আমাদের হুমকি দিয়েছেন। রানিং স্টাফরা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছে। গত প্রায়  সাড়ে তিন বছর তাদের অনেক সময় দেওয়া হয়েছে। এটা নতুন কোনো বিষয় না, কারণ এটা ১৬২ বছর যাবৎ চলে আসছে। ১৬২ বছর ধরে চলে আসা একটা বিষয় হুট করে বন্ধ করে দেবে, এটা তো রেলের কোনো স্টাফ মেনে নিতে পারেন না। 

বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে রানিং স্টাফ ও শ্রমিক-কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছি। চার মাস আগে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনেও আন্দোলন করেছি, কিন্তু কোনো সমাধান আসেনি। উল্টো মিটিং ডেকে মন্ত্রী আমাদের হুমকি দিয়েছেন। অন্যদিকে রেলওয়ে শ্রমিকদের পেনশনের ফাইল আটকে রেখেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। আমরা সব সমস্যা সমাধানের দাবিতে আন্দোলনে যাচ্ছি।’  

এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন বাংলাদেশ রেলওয়ে রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক। 

রেলওয়ের মহাপরিচালক (ডিজি) মো. কামরুল আহসান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘রেলওয়ের রানিং স্টাফদের সঙ্গে মন্ত্রী মহোদয়ের মিটিং হয়েছে। উনি স্টাফদের অনুরোধ করেছেন ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে। আমরাও এটাই জানি। আমরা এখনো কথা বলছি।’ 

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ৩ নভেম্বর অর্থ মন্ত্রণালয় মাইলেজ সুবিধা সীমিত করতে রেল মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেয়। ওই চিঠিতে আনলিমিটেড মাইলেজ সুবিধা বাদ দিয়ে তা সর্বোচ্চ ৩০ কর্মদিবসের সমপরিমাণ করার কথা জানানো হয়। এ ছাড়া বেসামরিক কর্মচারী হিসেবে রানিং স্টাফদের পেনশন ও আনুতোষিক ভাতায় মূল বেতনের সঙ্গে পাওয়া অন্য কোনো ভাতা যোগ করার বিষয়টিও বাদ দেওয়া হয়। এর পর থেকেই রানিং স্টাফদের মাঝে ক্ষোভ বাড়তে থাকে।

logo
সম্পাদক ও প্রকাশক মো: মনিরুজ্জামান মনির